কানাইঘাটে নজু মিয়া হত্যার বিচারের দাবিতে সমাবেশ অনুষ্ঠিত-জনকল্যাণ২৪

প্রকাশিত: ৪:১৮ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ১৩, ২০২০

কানাইঘাটে নজু মিয়া হত্যার বিচারের দাবিতে সমাবেশ অনুষ্ঠিত-জনকল্যাণ২৪

মীম সালমান :: সিলেট’র কানাইঘাট উপজেলার লক্ষ্মীপ্রসাদ পুর্ব ইউনিয়ন লোহাজুরি গ্রামে নজরুল ইসলাম নজু মিয়া হত্যার প্রতিবাদে এবং ইউনিয়নব্যাপী একের পর এক সন্ত্রাসী হামলার সাথে জড়িতদের সর্বোচ্চ শাস্তির দাবিতে আজ বাদ আসর স্থানীয় লোহাজুরি নয়া বাজারে প্রতিবাদ সমাবেশ পালন করেছে এলাকাবাসী। সমাবেশে বক্তারা বলেন নজরুল ইসলাম নজু মিয়াকে যারা হত্যার সাথে যারা প্রকৃত আসামি তাদেরকে এবং ইউনিয়নে একের পর এক সন্ত্রাসী হামলার সাথে যারা জড়িত তাদেরকে আইনের আওতায় এনে সর্বোচ্চ শাস্তি না দিলে তারা আরো বড় আন্দোলন গড়ে তুলবে।

ইউপি সদস্য জনাব আবুল কালাম সাহেবের সভাপতিত্বে এবং ছাত্র জমিয়ত নেতা মীম সালমানের পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন, ইউনিয়ন চেয়ারম্যান ডাক্তার ফয়াজ উদ্দিন, বিশিষ্ট সমাজসেবী জনাব ফয়সল আলম, জেলা ছাত্রলীগ নেতা তারেক চৌধুরী, সাংবাদিক আব্দু রব, বিএনপি নেতা নাজিম, সাবেক ইউপি সদস্য মস্তাক আহমদ, জাকারিয়া ছিদ্দিক লিটন, মাওঃ আব্দুশ শহিদ, জাকারিয়া আহমদ, নিহতের ভাতিজা মাও নুরুদ্দীন, মাওঃ মনজুর আলম, নিহতের ছেলে মাওঃ জাকির হুসাই, মাওঃ কামরুল ইসলাম, হাঃ মিনহাজুল ইসলাম, মাওঃ রুহুল আমীন প্রমুখ।

উল্লেখ্য: গতকাল শুক্রবার রাত আনুমানিক ১২ টার সময় মুসলিম পাড়া গ্রামের মাঝামাঝি জায়গায় এঘটনা ঘটে।
ঘটনার জায়গা পরিদর্শন করে জানা যায় যে, রাত আনুমানিক ১২ টা ১০ মিনিটের সময় লোহাজুরি গ্রামের পাশের গ্রাম মুছলিম পাড়ার মাঝামাঝি একটি জায়গায় খালের পারে নজু মিয়ার রক্তাক্ত দেহ পড়তে দেখে পথযাত্রী লোকজন চিক-চিৎকার দিতে শুরু করে। এমন সময় চারিদিক থেকে লোকজন এসে নজু মিয়ার রক্তাক্ত শরীর উদ্ধার করে বর্তমানে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজের উদ্দেশ্যে রওয়ানা হন নজু মিয়ার ছেলে ও ভাতিজারা। ওসমানী মেডিকেল কলেজে নেয়ার পরপরই চিকিৎসকরা তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন।

পরে নিহতের ছেলে দেলোয়ার হুসেন বাদী হয়ে কানাইঘাট উপজেলায় ১৪ জনকে আসামি করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করে মালমা প্রদান করত: ইতিমধ্যে চারজনকে পুলিশ গ্রেফতার করেছে। বাকিদেরকে গ্রেফতারের পক্রিয়াধীন চলছে।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ