করোনাকালে বাংলাদেশ প্রশংসিত হয়েছে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

প্রকাশিত: ৯:২৪ পূর্বাহ্ণ, অক্টোবর ৮, ২০২০

করোনাকালে বাংলাদেশ প্রশংসিত হয়েছে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

বাংলাদেশের স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেছেন,‘পৃথিবীর কোথাও স্বাস্থ্য সেক্টর নিয়ে এত সমালোচনা হয়নি যতটা বাংলাদেশ নিয়ে হয়েছে। এখন বাংলাদেশ প্রশংসিত। স্বাস্থ্য বিভাগ ভালো করছে বলেই অর্থনীতিতে আমরা ভালো করছি। বিভিন্ন দেশের জিডিপি মাইনাসে চলে গেছে,সেখানে বাংলাদেশের জিডিপি ছয় পয়েন্ট অতিক্রম করেছে।’

 মঙ্গলবার (৬ অক্টোবর) বাংলাদেশ প্রাইভেট মেডিক্যাল কলেজ অ্যাসোসিয়েশন (বিপিএমসিএ) আয়োজিত ‘করোনার দ্বিতীয় ঢেউ মোকাবিলা ও প্রস্তুতি’ শীর্ষক আলোচনা সভায় স্বাস্থ্যমন্ত্রী আরো বলেন,‘অফিস-আদালত খুলে গেছে। যার কারণে আমাদের অর্থনীতি সচল। এক্সপোর্ট-ইমপোর্ট শুরু হয়ে গেছে। দোকানপাট খুলে গেছে। মিল ফ্যাক্টরি চলছে। গার্মেন্টসে কাজ করছে শ্রমিকরা, গার্মেন্টসে অর্ডার আসছে।

বাংলাদেশের চিকিৎসা সেবা প্রসঙ্গে স্বাস্থ্যমন্ত্রী গর্ব করে বলেছেন,‘দেশের চিকিৎসা সেবা অনেক উন্নত হয়েছে। হাসপাতালে চিকিৎসা হচ্ছে। হাসপাতালের বাইরে মানুষ মারা যায় না। প্রতিবেশী দেশেও রাস্তায় লাশ পড়ে রয়েছে।’

তবে,চিকিৎসা বিশেষজ্ঞগরা বলছেন, করোনাকালে বাংলাদেশের স্বাস্থ্য খাতের যে ব্যাপক দুর্নীতি প্রকাশ হয়েছে সেরকম উদাহরণ  অন্য দেশে নেই। আর অন্য দেশে করোনা নিয়ে সমালোচনার মুখে স্বাস্থ্যমন্ত্রীর পদত্যাগের উদাহরণ থাকলেও বাংলাদেশে তা নেই।

এ প্রসঙ্গে ডক্টরস ফর হেলথ এন্ড এনভায়রনমেন্ট-এর সাধারণ সম্পাদক ডা. কাজী রকিবুল ইসলাম রেডিও তেহরানকে বলেছেন,করোনা  চিকিৎসার ক্ষেত্রে প্রথম পর্যায়ে যেমন অবহেলা আব্যবস্থাপনা ছিল তা কাটিয়ে উঠলেও অবস্থা ভালো বলা যাবে না কারণ এখনো প্রতিদিন ত্রিশজনের মতো  মানুষ  মারা যাচ্ছে।

তিনি আরো বলেছেন, চিকিৎসা ক্ষেত্রে যে ব্যাপক দুর্নীতি হচ্ছে তার জলজ্যান্ত প্রমাণ তো একজন ড্রাইভার মালেক বা মেডিক্যাল কলেজে  ভর্তি  পরীক্ষার প্রশ্ন জালিয়াতি। এ সব তো দীর্ঘ সময় ধরে চলছে। পৃথিবীর  কোনো দেশে বাংলাদেশের মতো নকল মাস্ক বা ভুয়া করোনা সার্টিফিকেট  ইস্যু করার উদাহারণ নেই;ভুয়া প্রতিষ্ঠানকে কাজ দিয়ে দাতা সংস্থার অর্থ নয়-ছয় করার উদাহরণ নেই। যারা তদারকীর দায়িত্বে ছিলেন বা আছেন তারা তো এর দায়িত্ব  এড়াতে পারেন না।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ