বন্যা নিয়ামত নাকি গজব: জুনাইদ আহমদ-জনকল্যাণ ২৪

প্রকাশিত: ১০:৫৪ অপরাহ্ণ, জুলাই ১০, ২০২০

বন্যা নিয়ামত নাকি গজব: জুনাইদ আহমদ-জনকল্যাণ ২৪

পানির আরেক নাম জীবন।যখন সেই পানি প্রয়োজনের চেয়ে বেশী হয় তখন তা হয়ে ওঠে মরণের কারণ।এটা ও আমাদের জন্য একটি বড় পরীক্ষা।আল্লাহ রাব্বুল আলামিন নূহ আঃ এর জাতিকে তাদের পাপের কারণে এই পানিকে শাস্তি রুপে প্রেরণ করেছিলেন।

এবং পাপিষ্টরা তাদের পাপের কারণে পানিতে নিমজ্জিত হয় ডুবে মরে।আগেকার সমস্ত উম্মতকে আল্লাহ রাব্বুল আলমীন নির্দিষ্ট কোন পাপের কারণে পুরো উম্মতকে ধ্বংশ করে দিয়েছেন। যেমনঃহযরত লুত (আঃ) এর উম্মতের মধ্যে সমকাতিমা চালু থাকার কারণে ধ্বংশ করা হয়েছিল।হযরত শুয়াইব (আঃ)এর জাতি পরিমাণে কম বেশী করার কারনে ধ্বংশ হয়েছিল।
কিন্তু শেষ নবীর উম্মতের মধ্যে আগেকার সকল উম্মতের পাপ বিদ্যমান।তারপরে তাদেরকে এক সাথে ধ্বংশ করা হচ্ছেনা।কারণ রাসুল (সাঃ) একটি দোয়া করেছিলেনঃহে দয়াময়, আমার উম্মতের পাপের কারণে সমস্ত উম্মতকে একসাথে তুমি ধ্বংশ করে দিওনা।রবের কাছে রাসুল উক্ত দোয়াটি কবুল হয়ে যায়।তাইতো এতসব পাপের কারণে ও সকল উম্মকে একসাথে শাস্তি দেওয়া হচ্ছেনা।
যখন যে স্হানে পাপাচার বেশী হয় তখন সে স্হানে শাস্তি প্রেরণ করা হয়।
আমাদের পাপের কারণে হয়তো এই ও আমাদের জন্য শাস্তি হতে পারে।
আমাদের ঘর-বাড়ি,ফসল ফলাদি নষ্ট করে আমাদের শাস্তি হতে পারে।
তাই মাওলার দরবারে পাপের জন্য ক্ষমা চাই।শাস্তি থেকে মুক্তি চাই।
একদিকে দফায় দফায় বন্যার কারণে মানুষসহ এমনকি গৃহপালিত পশু-পাখি সবই ক্ষতিগ্রস্ত। অপরদিকে মহামারী করোনা ভাইরাসের কারণে পুরো দেশ অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত।
এই ক্ষতি কোনদিন শেষ হবে তা বলা মুশকিল।
এখনো সময় আছে আমাদেরকে তাওবা করে আল্লাহর দিকে ফিরে আসতে হবে।
কারণ আল্লাহ পাক পবিত্র কালামে বলেছেনঃ
জলে বা স্থলে যে বিপর্যয় দেখা দেখ তাহলো সবই তোমাদের হাতের কামাই।
আমরা আমাদের কৃতকর্মের ফলাফল পাচ্ছি।
আল্লাহ পাক আমাদের বুঝার এবং তার নিকট তাওবা করার তাওফিক দান করুক।
আমিন।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ