যান্ত্রিক পদ্ধতিতে বালু এবং পাথর উত্তোলন না করার জন্য চেয়ারম্যান ফারুক আহমেদ’র আহ্বান

প্রকাশিত: ১১:০৯ পূর্বাহ্ণ, জুলাই ৯, ২০২০

যান্ত্রিক পদ্ধতিতে বালু এবং পাথর উত্তোলন না করার জন্য চেয়ারম্যান ফারুক আহমেদ’র আহ্বান

আবু তালহা তোফায়েল :: আজ ০৯ জুলাই, বৃহস্পতিবার গোয়াইনঘাট উপজেলা মিলনায়তনে পরিষদের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ ফারুক আহমেদের সভাপতিত্বে এবং ইউএনও নাজমুস সাকিব-এর পরিচালনায় উপজেলা পরিষদের মাসিক সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সভায় সভাপতির বক্তব্যে গোয়াইনঘাট উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান জননেতা মোহাম্মদ ফারুক আহমেদ বলেন, আমাদের এই গোয়াইনঘাট উপজেলা আয়তনে দেশের সর্ববৃহৎ উপজেলা এবং খনিজ সম্পদে ভরপুর। কিন্তু আমাদের এই অঞ্চলের মানুষ এখনো হতদরিদ্র এবং দুর্যোগে দিনযাপন করতে হয়। তাই তিনি জাফলং এলাকায় যান্ত্রিক পদ্ধতিতে বালু উত্তোলন না করার জন্য বিশেষভাবে তাকিদ দেন।
তিনি বলেন ইতোমধ্যে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো.নাজমুস সাকিবের নেতৃত্বে দুই দুইবার টাস্কফোর্সের সফল অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে; এবং এসময় উপস্থিত ছিলেন সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার নজরুল ইসলাম ও অফিসার ইনচার্জ মো.আব্দুল আহাদসহ যারাই অভিযানে অংশ গ্রহণ করেছিলেন তাদের সবাইকে উপজেলা পরিষদের পক্ষ থেকে তিনি ধন্যবাদ জানান। ইতোমধ্যে গত ০১ জুন হতে মোট ১৫টি মামলায় ৫,৫০,০০০ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

তিনি আরো বলেন যে, আমি আশাকরি গোয়াইনঘাটের শ্রমজীবি মানুষের কথা মাথায় রেখে প্রশাসন এ অভিযানের ধারাবাহিকতা সবসময় অব্যাহত রাখবেন।
লিষ্টার বা বিলাই মেশিন দিয়ে বালু উত্তোলন করলে শ্রমজীবি ও কর্মজীবী মানুষ বেকার হয়ে যায় এতে উপজেলায় বেকারত্বের হার বেড়ে গিয়ে অপরাধ প্রবণতা বেড়ে যেতে পারে তাই সনাতন পদ্ধতিতে বালু উত্তোলন করা এবং জাফলং ব্রীজ ও চা বাগান এলাকার আশ-পাশে থেকে যাতে বালু উত্তোলন করা না হয় এ বিষয়ে সভায় আলোচনাও করেন তিনি।

এদিকে জেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্তৃক উপজেলা পর্যায়ে এবং জাইকা ও ইউজিডিপি এসেসমেন্টে গোয়াইনঘাট উপজেলা পরিষদ প্রথম স্থান অধিকার করায় উপজেলা পরিষদের সভায় উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও নির্বাহী অফিসার’কে ধন্যবাদ জানানো হয়।

মাসিক সভায় উপস্থিত ছিলেন গোয়াইনঘাট উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মাওলানা গোলাম আম্বিয়া কয়েছসহ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও পরিষদের বিভিন্ন শাখার অফিস কর্মকর্তা।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ