সেনা সদস্যদের মার্শাল আর্ট প্রশিক্ষণ দেবে চীন- জনকল্যাণ ২৪

প্রকাশিত: ৬:১১ অপরাহ্ণ, জুন ২৮, ২০২০

সেনা সদস্যদের মার্শাল আর্ট প্রশিক্ষণ দেবে চীন- জনকল্যাণ ২৪

নিউজ ডেস্ক:চীন তিব্বত মালভূমিতে থাকা সেনাদের প্রশিক্ষণ দিতে ২০ জন মার্শাল আর্ট প্রশিক্ষককে পাঠাচ্ছে বলে জানিয়েছে দেশটির রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যম।

লাদাখের গালওয়ান উপত্যকায় ভারতীয় বাহিনীর সঙ্গে চীনা সীমান্তরক্ষীদের সংঘর্ষের পর বেইজিংয়ের দিক থেকে এ সিদ্ধান্ত এল বলে জানিয়েছে বিবিসি।
১৯৯৬ সালে দেশ দুটির মধ্যে হওয়া এক চুক্তিতে সীমান্তে বন্দুক বা বিস্ফোরকদ্রব্য বহন না করার বিষয়ে উভয় পক্ষই প্রতিশ্রুতিবদ্ধ হয়ে আছে।
চলতি মাসের মাঝামাঝি গালওয়ান উপত্যকায় দুই পক্ষের সংঘর্ষে অন্তত ২০ ভারতীয় সেনা নিহত ও আরও ৭৬ জন আহত হয় বলে নয়া দিল্লি জানিয়েছিল। চীনের পক্ষে কী ক্ষয়ক্ষতি হয়েছিল তা প্রকাশ করেনি বেইজিং।
হতাহাতি এ লড়াইয়ে উভয় পক্ষ পাথর ছোড়াছুড়ি করলেও চীনা পক্ষ পেরেক লাগানো রড ব্যবহার করেছে বলে অভিযোগ ভারতের।

পারমাণবিক শক্তিধর এ দুই দেশের মধ্যে সীমান্ত নিয়ে বিরোধ থাকলেও পাঁচ দশকের মধ্যে এবারই প্রথম প্রাণঘাতী সংঘর্ষের ঘটনা ঘটল।
চীনের রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যম ২০ জুনেই তিব্বতে মার্শাল আর্ট প্রশিক্ষক পাঠানোর খবর দিয়েছিল বলে হংকংয়ের গণমাধ্যমগুলো জানিয়েছে।
চীনা রাষ্ট্রায়ত্ত সম্প্রচারমাধ্যম সিসিটিভি জানিয়েছে, এনবো ফাইট ক্লাবের ২০ মার্শাল আর্ট প্রশিক্ষক তিব্বতের রাজধানী লাসাতেই থাকবেন। এ প্রশিক্ষকরা ভারত সীমান্তে থাকা সেনাদের প্রশিক্ষণ দেবেন কিনা তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি।
লাদাখের গালওয়ান নদী উপত্যকায় ১৫ জুনের সংঘর্ষের জন্য নয়া দিল্লি ও বেইজিং একে অপরকে দোষারোপ করে আসছে। রুক্ষ প্রকৃতি ও উঁচু-খাড়া চড়াইয়ের এ এলাকাটি চীন অধিকৃত আকসাই চীনের কাছে।
বিতর্কিত এ আকসাই চীনকে ভারত নিজেদের এলাকা বলে দাবি করলেও দীর্ঘদিন ধরেই অঞ্চলটি বেইজিংয়ের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ