কানাইঘাটে দরিদ্র পরিবারের মাঝে ইসলাহুল মুসলিমীনের রিকশা ভ্যান – জনকল্যাণ ২৪

প্রকাশিত: ৯:২২ পূর্বাহ্ণ, জুন ২১, ২০২০

কানাইঘাটে দরিদ্র পরিবারের মাঝে ইসলাহুল মুসলিমীনের রিকশা ভ্যান – জনকল্যাণ ২৪

ফরিদ আহমদ ফেরদাউস: যুক্তরাজ্যভিত্তিক চ্যারিটেবল সংস্থা মুসলিম ওয়েলফেয়ার ইন্সটিটিউট ইউকে’র ইনকাম সাপোর্ট প্রোগ্রামের অর্থায়নে ও ইসলাহুল মুসলিমীন পরিষদ বাংলাদেশের উদ্যোগে সিলেট জেলার কানাইঘাট উপজেলার ৮টি দরিদ্র পরিবারের মধ্যে রিক্সা ভ্যান প্রদান করা হয়েছে।

উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মাওলানা আব্দুল্লাহ শাকিরের সার্বিক তত্ত্বাবধানে ২০ জুন শনিবার বিকেল ৩টায় উপজেলা পরিষদ কার্যালয়ের সামনে ৮টি কর্মজীবি পরিবারে জীবিকা নির্বাহের জন্য তাদের হাতে রিকশা ভ্যান তুলে দেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ বারিউল করিম খান।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন- ৫নং বড়চতুল ইউপি চেয়ারম্যান মাওলানা আবুল হোসাইন চতুলী, ৩নং দিঘীরপাড় পূর্ব ইউপি চেয়ারম্যান আলী হোসেন কাজল, কানাইঘাট প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক নিজাম উদ্দিন, দারুল উলূম মাদ্রাসার সহকারী শিক্ষক মাও. আসআদ আহমদ, ব্যবসায়ী আফতাব উদ্দিন, শামীম আহমদ বকুলসহ স্থানীয় সংবাদকর্মীরা।

রিকশা ভ্যান বিতরণকালে নির্বাহী কর্মকর্তা বারিউল করিম খান বলেন, যুক্তরাজ্যভিত্তিক বিভিন্ন চ্যারিটেবল সংস্থা বাংলাদেশের শ্রমজীবি মানুষের আর্তসামাজিক উন্নয়ন, দারিদ্র বিমোচন ও কর্মসংস্থান বৃদ্ধিতে ভূমিকা রাখছেন। তার মধ্যে মুসলিম ওয়েলফেয়ার ইন্সটিটিউট ইউকে ইসলাহুল মুসলিমীন পরিষদের চেয়ারম্যান আল্লামা ফরিদ উদ্দিন মাসঊদ এর মাধ্যমে বিভিন্ন সময়ে কানাইঘাটের অসহায়দের অর্থনৈতিক সহযোগিতার পাশাপাশি কর্মজীবি অনেক পরিবারের মধ্যে ৪র্থ বারের মতো রিকশা ভ্যান প্রদান করায় তিনি সংস্থার নেতৃবৃন্দের প্রতি উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

ইসলাহুল মুসলিমীন পরিষদের জেনারেল কমিটির সদস্য ভাইস চেয়ারম্যান মাওলানা আব্দুল্লাহ শাকির বলেন, মুসলিম ওয়েলফেয়ার ইন্সটিটিউট ইউকে ইসলাহুল মুসলিমীন পরিষদের মাধ্যমে দেশের বিভিন্ন দুর্যোগময় মুহূর্তে অসহায়দের পাশে দাঁড়ানোর পাশাপাশি শত শত দরিদ্র পরিবারকে তাদের জীবিকার পথ সুগম করার জন্য রিক্সা ভ্যান প্রদান করে আসছেন। ভবিষ্যতেও এ সংস্থাটি কানাইঘাটে মানুষের পাশে সব-সময় থাকবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

রিকশা ভ্যান পেয়ে দরিদ্র পরিবারের একমাত্র উপার্জনকারী ব্যক্তি আব্দুল মালিক ও আঙ্গুর মিয়া আবেগ আপ্লুত কন্ঠে বলেন, ‘আমাদের কোনদের সামর্থ নেই এ ধরনের একটি রিকশা ভ্যান কিনব। আজকে সম্পূর্ণ বিনামূল্যে রিকশা ভ্যান পাওয়ায় তার মাধ্যমে আমাদের পরিবারের আয় রোজগারের অনেকটা সচ্চলতা ফিরে আসবে।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ