দিরাইয়ে দেবর ভাবীর ঝগড়াকে কেন্দ্র করে এক পরিবারকে পাঞ্চায়েত থেকে বাদ

প্রকাশিত: ৬:৩১ অপরাহ্ণ, জুন ২০, ২০২০

দিরাইয়ে দেবর ভাবীর ঝগড়াকে কেন্দ্র করে এক পরিবারকে পাঞ্চায়েত থেকে বাদ

মিজান আহমদ,দিরাই প্রতিনিধিঃ-সুনামগঞ্জ দিরাইয়ে দেবর -ভাবীর ঝগড়াকে কেন্দ্র করে একজন ব্যাক্তিত্বকে পঞ্চায়েত বাদ দিয়েছেন রুমন চৌধুরী নামে এক ব্যাক্তি।জানা যায় দিরাই উপজেলার ভাটিপাড়া ইউনিয়নের মুধুরাপুর গ্রামে এমন ন্যাক্কার জনক ঘটে। ভাটিপাড়া ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান মরহুম মনজুরুল ইসলাম চৌধুরী লিটনের স্ত্রী ও তার ভাইদের মধ্যে ধন-সম্পত্তি সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে বিভিন্ন ঝামেলা সৃষ্টি হয় ।

এ নিয়ে বিরাট সংঘর্ষ ও হয়েছিল। বিভিন্ন জাতিয় ও স্থানীয় অনলাইন গণমাধ্যমে প্রকাশিত হয়েছিল,। দিরাইয়ে দেবর-ভাবির লড়াই এই লড়াইয়ের পর ভাটিপাড়া গ্রামের রুমন চৌধুরীর নেতৃত্ব একটি পঞ্চায়েত অনুষ্টিত হয়। রুমন চৌধুরীর কথা অমান্য করায় তিনি আমজাদ হোসেন চৌধুরীকে পঞ্চায়েত থেকে ( পাঁচের) বাদ দিয়ে দেন। রুমন চৌধুরীর স্বার্থের আঘাত পরা মাত্র তিনি এমন ন্যাক্কার জনক কাজ করেন। এনিয়ে এলাকায় আলোচনা সমালোচনার ঝড় বইছে। এলাকাবাসী জানান, আমরা হতবাক তাদের এই কর্মকান্ড দেখে স্বার্থের জন্য নিজেদের মধ্যে এমন হিংসা বিদ্ধেষ আসলেই লজ্জাজনক বিষয়।

আমাদের এলাকায় কোন কালেই এমন ঘটনা ঘটে নাই । পঞ্চায়েত থেকে বাদ দেওয়া বিষয়টি মারাত্বক অন্যায়। আমরা এলাকাবাসী আতংকে আছি রুমন চৌধুরী তার আপন চাচাতো ভাই আমজাদ হোসেন চৌধুরীকে পঞ্চায়েত থেকে বাদ দেওয়া ইস্যু করে যে কোন সময় ঘটতে পারে রক্তক্ষয়ী সংঘাত।

এব্যাপারে রুমন চৌধুরীর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন,এটা আমাদের গ্রাম্য বিষয় যে এই কথা নিয়ে যারা ছড়াছড়ি করে ওরা গ্রামের শত্রু। আমজাদ হোসেন চৌধুরী বলেন, আমাকে ওরা পঞ্চায়েত থেকে বাদ দিয়েছে। এই বিষয়ে আমি এখন কোন কথা বলতে পারব না। সমস্যা আছে।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ